বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতার পদ ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ, লাঠিচার্জ

বহিষ্কৃত ছাত্রলীগ নেতার পদ ফেরতের দাবিতে বিক্ষোভ, লাঠিচার্জ

বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হোসাইনকে স্বপদে বহালের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিরার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে পাথরঘাটা উপজেলা শহরে এসব কর্মসূচি পালিত হয়। এদিকে এনামুলের সমর্থক নেতাকর্মীদের এমন কর্মসূচিকে প্রতিহত করতে পাথরঘাটা উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অবস্থান নেয় তার প্রতিপক্ষ নেতাকর্মীরা। সরকার দলীয় ছাত্র সংগঠনের এমন উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়েছে।অন্যদিকে যেকোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে পাথরঘাটার বিভিন্ন স্থানে। দুপুর পৌনে ১২টার দিকে এনামুলের সমর্থক নেতাকর্মীদের বিক্ষোভ মিছেল প্রতিহত করতে চাইলে প্রতিপক্ষের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ানোর আশঙ্কা সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ তাৎক্ষণিক লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত ১৭ অক্টোবর পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হোসাইনকে অনুপ্রেবশকারী উল্লেখ করে সাংগঠনিক নীতিমালা ভঙ্গের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ তাকে বহিষ্কার করে। এরপর থেকে এনামুলের সমর্থক ও প্রতিপক্ষের নেতাকর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা শুরু হয়। এ অবস্থায় এনামুলকে স্বপদে বহালের দাবিতে শুক্রবার পাথরঘাটায় বিক্ষোভ মিছিল এবং শনিবার একই দাবিতে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন এই উত্তেজনায় ঘি ঢালে।এ বিষয়ে সদ্য বহিষ্কৃত পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এনামুল হোসেন বলেন, আমি যে ষড়যন্ত্রেরর শিকার তা পাথরঘাটা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা বুঝতে পেরে মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলনেরর আয়োজন করে। কিন্তু প্রতিপক্ষের ছাত্রলীগ নেতারা সেই মানববন্ধন ও সংবাদ সম্মেলন পণ্ড করার জন্য আমার নেতাকর্মীদের শহরে প্রবেশ করতে দিচ্ছে না। আমার সমর্থক নেতাকর্মীরদের মারধর করে ছত্রভঙ্গ করে দিচ্ছে। মারধরে আমার অন্তত ২০ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।তবে পাথরঘাটা উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. হাফিজুর রহমান সোহাগ বলেন, এনামুল ও তার নেতাকর্মীরা যেটা করছেন, তা সম্পূর্ণ সংগঠনবিরোধী। তিনি তার পদ ফেরত পাওয়ার জন্য কেন্দ্রে আপিল করতে পারেন। কিন্তু তিনি তা না করে মিছিল মিটিং করে পাথরঘাটায় উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।

এদিকে এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাথরঘাটা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আবু তাহের গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে অপারগতা প্রকাশ করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




© All rights reserved©  Designed By Nagorikit.Com
Design BY NewsTheme